অনিন্দ্য ইসলাম অমিতের আগমনে যশোর বিএনপিতে নতুন করে প্রান সঞ্চালন, তুনমুলে উচ্ছাসের জোয়ার।

0

পিতা বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেক সফল মন্ত্রী জননেতা জনাব তরিকুল ইসলামের উন্নত চিকিসার্থে গত ২৪শে অক্টোবর সিঙ্গাপুরে যেতে হয় বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির খুলনা বিভাগিীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব অনিন্দ্য ইসলাম অমিতকে।সেখানে মাউন্ট এলিজাবেথ হসপিটালে জনাব তরিকুল ইসলামের চিকিৎসা চলে, বৃহত্তর যশোরের ধর্ম-বর্ন, দলমত নির্বিশেষে সকলের অকুন্ঠ দোয়া ও মহান আল্লাহর অশেষ রহমতে জননেতা জনাব তরিকুল ইসলামের শারিরিক অবস্থা এখন অনেকটা উন্নতির দিকে। গত ১১ই নভেম্বর দেশে পৌছে পরদিন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সোহরাওয়ার্দি উদ্যানের জনসভায় যশোর জেলা বিএনপি ও অংঙ্গ সংগঠনের বিশাল মিছিলের নেতৃত্ব দিয়ে অংশগ্রহন করেন জনাব অনিন্দ্য ইসলাম অমিত। ঢাকায় আরও কিছু সাংগঠনিক কাজ সম্পন্ন করে আজ সকালের বিমানে যশোরে ল্যান্ড করেন তিনি।

এদিকে দির্ঘ দিন দেশে তথা যশোরে অনিন্দ্য ইসলামের অনুপস্থিতিতে যশোরের বিএনপির রাজনীতি অনেকটাই নির্জীব হয়ে পরেছে।কারন তৃনমুল বান্ধব এই উদিয়মা্ন তরুন নেতার শুধু উপস্তিতিই নেতা-কর্মীদের এক ধরনের অদ্ভুদ শক্তি জোগায়।সেজন্যই আজ অনেক দিন পর নেতার আসার খবর পেয়ে বাধ ভাঙ্গা জোয়ারের মতো এয়ারপোর্টে নেত্র অভ্যর্থনা ছুটে যায় যশোরের বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলের সহশ্রাধিক নেতা-কর্মী। নেতাও তেমন দির্ঘদিন পর নিজের প্রিয় কর্মীদের কাছে পেয়ে সব ভুলে যান, এ যেন আত্মার সাথে আত্মার মিলন।এয়ারপোর্টেই প্রায় ঘন্টা খানেক তার প্রিয় কর্মীদের সাথে অতিবাহত করেন যশোর তিন আসনের ভবিষ্যত, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির খুলনা বিভাগিীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব অনিন্দ্য ইসলাম অমিত।এরপর এয়ার পোর্ট থেকে বেরিয়ে আসেন তিনি সাথে নেতা-কর্মীরা প্রায় ২/৩শত মটর সাইকেলের বহর নিয়ে প্রিয় নেতাকে এসকর্ট করতে থাকে।

আসলে রাজনীতি মুল শক্তি, আস্থা ও বিশ্বস্ততার যেখানে শুরু সেই ওয়ার্ড পর‌্যায়ের তুনমুল থেকেই রাজনীতিতে তার পথ চলা শুরু করেন জনাব অনিন্দ্য ইসলাম অমিত।

দীর্ঘদিন ওয়ার্ডে রাজনীতি করার ফলে বিএনপির মুল শক্তি তৃনমূল কর্মীদের সাথে তার এক নিবিড় আন্তরিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে। যশোরের তৃনমূল কর্মীরা আন্দোলন সংগ্রাম, মিছিল মিটিংয় এমনকি তাদের ব্যক্তিগত সুখ-দু:খ সর্ব অবস্থায় কাছে পেয়েছে অনিন্দ্য ইসলাম অমিত কে। মিছিল মিটিংয়ে তৃনমূলের সাথে একই কাতারে অবস্থানের ফলে তার কথা বার্তা ও আচার আচরণের ভেতর দল ও কর্মীদের প্রতি আন্তরিক দায়িত্ববোধ এবং বিভিন্ন পরিস্থিতিতে সহজাত নেতৃত্ব সুলভ আচরণের বহি:প্রকাশে ঐ সময় থেকেই যশোর বিএনপির তৃনমূল নেতা কর্মীদের মাঝে ক্রমশ তার প্রতি গড়ে উঠে প্রবল ভালোবাসা ও আস্থা । যে নির্ভরতা ও আস্থা জননেতা তরিকুল ইসলামের মাঝে খুঁজে পেয়েছে নেতা কর্মীরা ঠিক সেই নির্ভরতা ও আস্থা আজ তাদের মনে বপন করতে পারার মধ্য দিয়ে নিজেকে জননেতা তরিকুল ইসলামেরে যোগ্য উত্তরসুরী ও একই সাথে যশোর তিন আসনের উত্তরাধীকার প্রতিষ্ঠিত করেছে।

জনাব অনিন্দ্য ইসলাম অমিত সম্পর্কে বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য বিষয়ক সম্পাদক জনাব আজীজুল বারী হেলালের উল্লেখ করে শেষ করছি: “রক্তের উত্তরাধিকারীর ভিত্তিতে নয় রাজনৈতিক সাংগঠনিক যোগ্যতার ভিত্তিতে জাতীয় রাজনৈতীক অঙ্গনে নিজের নেতৃত্ব প্রমাণ করেছেন উদীয়মান তরুণ নেতা অনিন্দ্য ইসলাম অমিত”- বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য বিষয়ক সম্পাদক জনাব আজীজুল বারী হেলাল।

জুবায়ের তানভীর সিদ্দিকী