গাজিপুরে জনপ্রিয় নেতা অধ্যাপক এম. এ. মান্নান

0

আলহাজ্ব অধ্যাপক এম. এ. মান্নান গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের অন্তর্গত সালনা গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলীম পরিবারে ১৯৫০ সালে জন্মগ্রহন করেন। তিনি প্রাচ্যেও অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফলিত রসায়নে এম, এস, সি ডিগ্রি অর্জন করেন। পরবর্তীতে টঙ্গী কলেজে শিক্ষক হিসেবে যোগদানের মাধ্যমে কর্মজীবন শুরু করেন।

meyor_mannan

শিক্ষকতার পাশাপাশি তিনি রাজনৈতিক ও সামাজিক নানা কর্মকান্ডে নিজেকে সম্পৃক্ত করেন। তিনি বৃহত্তর পরিসরে মানুষের সেবা করার ব্রত নিয়ে ১৯৭৮ সালে জাতীয়তাবাদী গনতান্ত্রিক দলে (জাগদল) যোগদান করেন, যা পরবর্তীতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল ( বি. এন. পি ) হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে অধ্যাপক এম. এ. মান্নান জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক, সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদকের পদ অলংকৃত করেন। বর্তমানে তিনি বিএনপি চেয়ারপরসনের উপদেষ্টা হিসেবে তার দায়িত্ব পালন করছেন। ১৯৯১ই সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) মনোনিত প্রার্থী হিসেবে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হন ।

51d6c07835898-5

তাকে তৎকালিন মন্ত্রীসভায় ধর্মপ্রতি মন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয়। পরবর্তীতে নবগঠিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি তিনি জাতীয় রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। সেই সাথে তার নির্বাচনী এলাকা গাজীপুরের উন্নয়নে ব্যাপক অবদান রাখেন অধ্যাপক এম. এ. মান্নান।নব্য গঠিত বিএনপির কাউন্সিলে তিনি, বিএনপির নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হোন।তিনি নবগঠিত গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী হিসেবে তিনি মেয়র পদ প্রার্থী হিসেবে টেলিভিশন প্রতীকে নির্বাচনী লড়াইয়ে অবতীর্ণ হোন ও প্রায় ১লক্ষ ভোট বেশি পেয়ে বিজয় অর্জন করেন।

gazipur_65668

দেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে এ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে গাজীপুর সিটিকে একটি আধুনিক ও পরিকল্পিত সিটি হিসেবে গড়ে তোলে এলাকার জনগনের কাংখিত উন্নয়নে নিজেকে সম্পৃক্ত করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু নব্য বাকশাল সরকার পরাজয়ের গ্লানী ভুলতে না পেরে তার নামে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।

004_138397_150456